Breaking News
Home / জাতীয় / ক্ষমা চেয়ে শেষ ফোন দেন ভাইকে, খোঁজ মিলেনি শ্রমিক মোহাম্মদ আলীর

ক্ষমা চেয়ে শেষ ফোন দেন ভাইকে, খোঁজ মিলেনি শ্রমিক মোহাম্মদ আলীর

টিপু সুলতান নামের এক ব্যক্তি এসেছেন হারিয়ে যাওয়া ভাই মোহাম্মদ আলীর খোঁজে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় আগুন লাগার পর তার মুঠোফোনে দুবার ফোন করেছিলেন মোহাম্মদ আলী।

জীবনের ভুলত্রুটির জন্য শেষবারের মতো ভাইয়ের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। এরপর থেকে মোহাম্মদ আলীর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

টিপু বলেন, আগুন লাগার পর আমি তাকে বলেছিলাম জানলার কাচ ভেঙে পাইপ বেয়ে যেন নিচে নেমে আসতে। কিন্তু মানুষের চাপে সেটা সম্ভব হয়নি।’

বেঁচে ফিরে আসা ভাইয়ের সহকর্মী জানিয়েছেন, একসময় তাদের কয়েকজন সহকর্মী দোতলায় এসেছিলেন। কালো ধোঁয়ার কারণে নিচে নামা যায়নি। তখন থেকেই মোহাম্মদ আলীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখনো অনেক শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের সন্ধানে স্বজনরা সকাল থেকেই কারখানার সামনে আসতে শুরু করেছেন। স্বজনদের আহাজারিতে কারখানার পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।

এদিকে ১৬ ঘণ্টা পার হলেও কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে আগুন নিয়ন্ত্রণে পর্যায়ক্রমে কাজ করেছে ডেমরা, কাঞ্চন, সিদ্ধিরগঞ্জ, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকাসহ ফায়ার সার্ভিসের ১৭টি ইউনিট।

আগুনের ব্যাপকতা কিছু কমায় শুক্রবার সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট কাজ করছে বলে জানা গেছে।

নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অগ্নিকাণ্ডের সময় ছয়তলা ভবনের চারতলার শ্রমিকরা কেউ বের হতে পারেননি।

সিকিউরিটি ইনচার্জ চারতলার কেচি গেটটি বন্ধ করে রাখায় কোনো শ্রমিকই বের হতে পারেনি। প্রতিদিন ৪ তলায় ৭০-৮০ জন শ্রমিক কাজ করতেন। চতুর্থ তলার শ্রমিকদের ইনচার্জ মাহবুব, সুফিয়া, তাকিয়া, আমেনা, রহিমা, রিপন, কম্পা রানী, নাজমুল, মাহমুদ, ওমরিতা, তাছলিমাসহ প্রায় ৭০-৮০ জন শ্রমিকের খবর পাওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজনরা ফ্যাক্টরির সামনে এসে ভিড় করেছেন আপনজনের সন্ধানে। কারখানার সামনে নিখোঁজ স্বজনদের আহাজারিতে চারপাশ ভারী হয়ে উঠেছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কারখানার চারতলার ভবনের আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। তাছাড়া ধীরে ধীরে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়েও পড়ছে। কারণ ভবনের পঞ্চমতলায় ছিল কেমিকেলের গোডাউন।

এ বিষয়ে কাঞ্চন ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ শাহ আলম বলেন, মধ্যরাতে আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও সকাল ৬টার দিকে আবার কারখানার চার তলায় আগুন বাড়তে থাকে। আগুন নিয়ন্ত্রণের আগ পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট।

About Muktopata

Check Also

১৮ বছর পর কার্যকর হচ্ছে দুই ধ’র্ষ”কের ফাঁ”সি

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় দুই বান্ধবীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অবশেষে ফাঁসি কার্যকর হতে …