Breaking News
Home / জাতীয় / বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে বরযাত্রা

বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে বরযাত্রা

কঠোর লকডাউনে বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে লাশ বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সে চেপে বসেন একদল নারী-পুরুষ। ভেবেছিলেন রাতের অন্ধকারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে পৌঁছে যাবেন গন্তব্যে।

কিন্তু এর আগেই বাঁধা হয়ে দাঁড়ালো বেরসিক পুলিশ। থামানো হলো অ্যাম্বুলেন্সটি। দরজা খুলে একে একে নামানো হলো ১২ নারী-পুরুষকে।

রাত হয়ে যাওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মুখোমুখি হতে হয়নি তাদের। তবে আইন ভঙ্গের দায়ে অ্যাম্বুলেন্স চালককে দেয়া হয় মামলা।বৃহস্পতিবার(১ জুলাই) রাতে চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানার বহদ্দারহাট মোড়ে এ ঘটনাটি ঘটে।

নগর পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট মোহাম্মদ সাহেদ বলেন, বহদ্দারহাট মোড়ে চেকপোস্টে একটি অ্যাম্বুলেন্সকে থামানোর সংকেত দেয়া হয়।

পরে অ্যাম্বুলেন্সের দরজা খুলতেই দেখা যায় ভেতরে নারী-পুরুষে ভর্তি। ১২ জন নারী-পুরুষ চকবাজার মেডিকেল কলেজ স্টাফ কোয়ার্টার থেকে রওনা হয়ে নতুন ব্রিজ যাচ্ছিলেন।

তারা সবাই বিয়ের বরযাত্রী। ওই সময়ে কোনো ভ্রাম্যমাণ আদালত না থাকায় লকডাউনের আদেশ অমান্যের দায়ে তাদের শাস্তির আওতায় আনা হয়নি। তবে অ্যাম্বুলেন্স চালকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এর আগে, সকালে কর্ণফুলী উপজেলার মইজ্জারটেক এলাকায় যাত্রী বহনের দায়ে একটি অ্যাম্বুলেন্সকে আটক করে পুলিশ।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে চালককে এক হাজার টাকা জরিমানা করেন উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুকান্ত সাহা।

আরও পড়ুন

করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে আরো ৯০ কোটি টাকা দেবে সুইজারল্যান্ড

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আবার বেড়ে যাওয়ায় কমিউনিটিভিত্তিক কার্যকর প্রতিরোধ ব্যবস্থা আরো জোরদার করার জন্য সুইজারল্যান্ড অতিরিক্ত ৯.৮ মিলিয়ন সুইস ফ্র্যাংক (প্রায় ৯০ কোটি টাকা) সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

স্থানীয় জনগণকে অতিমারির বিস্তার রোধে সহায়তা এবং আর্থ-সামাজিক স্থিতিশীলতা জোরদার করার লক্ষ্যে এই অতিরিক্ত তহবিল ব্যয় হবে।

এই উদ্দেশ্যে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে এবং বাংলাদেশ সরকারের ঘনিষ্ঠ সহযোগিতায় সুইজারল্যান্ড কাজ করে যাবে।

গত বছরের এপ্রিলে এই অতিমারির প্রাদুর্ভাবের পর থেকে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এবং সম্মুখসারির সংস্থাগুলোকে সহায়তা করার জন্য সুইজারল্যান্ড বাংলাদেশজুড়ে ২০টি প্রকল্পে ১৭ মিলিয়ন সুইস ফ্র্যাংক (প্রায় ১৬০ কোটি টাকা) অর্থ সহায়তা প্রদান করেছে।

এই কার্যক্রমগুলো মহামারির নেতিবাচক প্রভাবের বিরুদ্ধে সময়োচিত প্রতিকার প্রদানে কার্যকর ভূমিকা রেখেছে। সুইস সহযোগিতায় এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫ লাখ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা সম্পর্কে সচেতনতা ও প্রশিক্ষণ লাভ করেছে।

১০ লাখ মানুষ করোনার উন্নত চিকিৎসার জন্য টেলিমেডিসিন পরিষেবা পেয়েছে। ১ লাখ ৩০ হাজার নিম্নবিত্ত মানুষের কাছে স্বাস্থ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়।

এছাড়াও ১ লাখ ১৫ হাজার মানুষকে নগদ অর্থ সহায়তা এবং ৬০ হাজার জনকে পুষ্টিকর খাবার প্রদান করা হয়। তদুপরি, লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা থেকে বেঁচে যাওয়াদের মনস্তাত্ত্বিক এবং আইনি সহায়তা প্রদানের জন্য চারটি হেল্পলাইন স্থাপন করা হয়।

সবার জন্য আগামী দিনগুলোতে টিকা নিশ্চিত করা হবে এই অভূতপূর্ব বৈশ্বিক সঙ্কট থেকে মুক্তির একটি অন্যতম চাবিকাঠি।

কোভ্যাক্স উদ্যোগে অতিরিক্ত ৩০০ মিলিয়ন সুইস ফ্র্যাংক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর সুইজারল্যান্ডের ফেডারেল কাউন্সিল গতকাল এই বৈশ্বিক উদ্যোগে চল্লিশ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা অনুদানের ঘোষণা দিয়েছে যা উন্নয়নশীল দেশগুলোতে আরো অধিক পরিমাণে টিকা দ্রুত সরবরাহে সাহায্য করবে।

About Muktopata

Check Also

১৮ বছর পর কার্যকর হচ্ছে দুই ধ’র্ষ”কের ফাঁ”সি

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় দুই বান্ধবীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অবশেষে ফাঁসি কার্যকর হতে …