Breaking News
Home / বিবিধ / মাইকে ঘোষণা দিয়ে হা”মলা: নির্বিকার পুলিশ

মাইকে ঘোষণা দিয়ে হা”মলা: নির্বিকার পুলিশ

সুনামগঞ্জে হিন্দু পল্লীতে হাম”লা হয় মাইকে ঘোষণা দিয়ে পরিকল্পিতভাবে৷ পুলিশ অন্ততঃ ১২ ঘন্টা আগে তথ্য জানার পরও হা”মলা ঠেকাতে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ৷

হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের সমালোচনা করে পোস্ট দেয়ার জেরে সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় হিন্দু পল্লীতে হামলা চালানো হয়৷

বুধবার সকালে হামলার দুইদিন আগে সোমবার হেফাজত নেতা জুনায়েদ বাবুনগরী ও মামুনুল হক শাল্লার পাশের উপজেলায় দিরাইতে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দেন৷ শাল্লার নোয়াগাঁও গ্রামের জুমন দাস নামে এক হিন্দু যুবক তখন মামুনুল হকের সমালোচনা করে একটি ফেসবুক পোস্ট দেন৷

তার জেরে মঙ্গলবার রাত ৮ টার দিকে পাশের কাশিপুরসহ আরো কয়েকটি গ্রামের হেফাজত সমর্থকেরা প্রথমে হিন্দু পল্লী নোয়াগাঁও আক্রমণ করতে আসে৷ কিন্তু ওই যুবককে তখন স্থানীয় হিন্দু নেতারা ধরে পুলিশে দেন এবং উত্তেজিত হেফাজত সমর্থকদের নিবৃত করতে সমর্থ হন৷

তারা হামলা না করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলে যান৷ কিন্তু বুধবার সকালে মাইকে ঘোষণা দিয়ে কয়েক হাজার লোক হামলা চালায়৷

শাল্লার হবিপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রাম ও পাশের কাশিপুর নারায়ণবাজার, হবিপুরের মধ্যে ছোট একটি নদী দারাই৷ ওই নদীর ওপর সাঁকো পার হয়েই নয়াগাঁও গ্রামে আসতে হয়৷

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিশ্বরূপ দাস জানান, হাজার-দেড় হাজার লোক যখন সকালে লাঠি, রামদা নিয়ে আক্রমণের জন্য আসে তা নদীর এপার থেকেই দেখা যায়৷ তাদের দেখে গ্রামের লোকজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যান৷

কিন্তু নারী ও শিশুদের একটি অংশ পালাতে পারেননি৷ হামলাকারীদের একটি অংশ সাঁকোর ওপারে অবস্থান করে আর আরেকটি অংশ গ্রামে ঢুকে বাড়ি ঘরে হামলা চালায়৷

তিনি জানান তারা দুইটি দলে ভাগ হয়ে বন্ধ ঘরে ঢুকে ভাঙচুর করে, আলামারি ভেঙে ফেলে, স্বর্ণালঙ্কার, মূল্যবান সামগ্রী ও টাকা পয়সা লুট করে৷ মোট ৮৮টি ঘরে হামলা চালিয়ে তারা লুটপাট করে৷ আর যে নারী ও শিশুরা পালাতে পারেনি তাদের মারধোর করে৷

বিশেষ করে জুমন দাসের স্ত্রী ও স্থানীয় ইউপি চেয়াম্যানের স্ত্রীকে ব্যাপক মারপিট করে৷ ইউপি চেয়ারম্যানের স্ত্রী বাথরুমে ঢুকে আত্মরক্ষার চেষ্টা করলে তাকে সেখান থেকে টেনে বের করে মারপিট করা হয়৷

তিনি জানান, ‘‘মঙ্গলবার রাতে তারা প্রথম যখন হামলা চালাতে আসে তখন তারা হয়ত রাত দেখে চলে যায়৷ আর আমরাও জুমন দাসকে ততক্ষণে পুলিশের হাতে দিয়েছি, যাতে পরিস্থিতি ঠাণ্ডা হয়৷ কিন্তু তারা হামলা না চলানোর প্রতিশ্রুতি দেয়ার পরও পরদিন সকালে হামলা চালায়৷”

তিনি অভিযোগ করেন, ‘‘পুলিশ পুরো ঘটনা জানত৷ তারা যে হামলা করতে এসে ফিরে গেছে তাও জানত৷ আর জুমন তো তাদের হেফাজতেই ছিল৷ তারপরও আমাদের নিরাপত্তার কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি৷ পুলিশ মোতায়েন করা হলে তারা হামলা চলাতে পারত না৷”

তিনি বলেন, শুধু তাই নয়, বুধবার সকালে হামলা শুরুর পর মাত্র ১০-১৫ জন পুলিশ আসে৷ তারা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে হামলা দেখেছেন৷ তাদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেনি৷ ওই কয়জন পুলিশের পক্ষে সেটা সম্ভবও ছিল না৷ হামলাকারীরা এক-দেড়ঘন্টা পর চলে গেলে পুলিশ আসে৷

তিনি অভিযোগ করেন, পাশের এলাকার আওয়ামী লীগ নেতাদেরও অনুরোধ করা হয়েছিল যেন তারা হামলা থামানোর ব্যবস্থা নেন৷ আর হামলায় নেতৃত্ব দেয় চণ্ডীপুরের স্বাধীন মেম্বার, পাক্কন মিয়াসহ আরো অনেকে৷ তবে স্বাধীন মেম্বার ডয়চে ভেলের কাছে অভিযোগ অস্বীকার করেন৷

সুনামগঞ্জ পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিমল বণিক বৃহস্পতিবার সরেজমিন নোয়াগাঁও গ্রাম পরির্দশ করেছেন৷ তিনি অভিযোগ করেন, ‘‘ হামলা ঠেকাতে পুলিশ আগাম কোনো ব্যবস্থা নেয়নি৷ আগের রাত থেকে উত্তেজনা চলছিল৷ পুলিশকে জানানোর পরও পুলিশ ছিলো নির্বিকার৷ মাঠে মাইকে ঘোষণা দিয়ে বুধবার সকালে হামলা চালানো হয়৷”

তিনি জানান, ‘‘একজন শ্রমিকদের টাকা দেয়ার জন্য ঋণ করে এক লাখ টাকা এনেছিলেন তাও নিয়ে গেছে হামলাকারীরা৷ যারা পালাতে পেরেছেন তারা সঙ্গে করে কেউ কেউ গরু বাছুরও নিয়ে যান৷”

পরিসংখ্যানে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীবর্তমান সংখ্যা

বিবিএসের করা বাংলাদেশ স্যাম্পল ভাইটাল স্ট্যাটিসটিকসের ২০১৮ সালের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে মুসলিম জনগোষ্ঠী মোট জনসংখ্যার ৮৮ দশমিক ৪ ভাগ৷ হিন্দু এবং অন্য ধর্মাবলম্বী ১১ দশমিক ৬ ভাগ৷ ২০১১ সালের আদমশুমারির হিসাবে সংখ্যালঘুদের সংখ্যা ছিল ৯ দশমিক ৬ শতাংশ৷ সরকারি হিসাবে বাংলাদেশের জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৪৬ লাখের হিসাবে তাদের সংখ্যা ১ কোটি ৭৪ লাখ৷

শাল্লা থানা ওসি নাজমুল হক বৃহস্পতিবার বিকেলে জানান, হামলার ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে তারা একজনকে আটক করেছেন৷ মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে৷ এদিকে ফেসবুক স্ট্যাটাস দেয়ার ঘটনায় আগের রাতেই হিন্দু যুবককে আটক করার কথা স্বীকার করেন তিনি৷

ওই গ্রামের লোকজনের থানায় যাওয়ার কথাও জানান তিনি৷ তারপরও কেন আগাম নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হলোনা জানতে চাইলে বলেন, ‘‘হামলা হবে সেটা আমরা ধারণা করতে পারিনি৷” হামলার দিন সকালেও কেন প্রথমে অল্প সংখ্যক পুলিশ পাঠানো হল তারও কোনো জবাব দিতে পারেননি ওসি৷ তিনি শুধু বলেন, ‘‘যাই হোক এখন পুলিশ আছে৷ পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে৷”

কারা এই হামলায় জড়িত তাও তদন্তের আগে বলা যাবে না বলে জানান তিনি৷

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘‘আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় স্থানীয় হেফাজতে ইসলামের লোকজন এই হামলা চালিয়েছে৷ তদন্তে আরো বেরিয়ে আসবে৷”

গ্রামবাসীরা পুলিশকে জানানোর পরও আগে কেন নিরাপত্তারব্যবস্থা নেয় হয়নি জানতে চাইলে বলেন, ‘‘এটা পুলিশের বিষয়৷ কারুর কোনো গাফিলতি থাকলে তা বেরিয়ে আসবে৷ বুধবার ঘটনার পর আমি ও এসপি ওই এলাকায় গিয়েছি৷ আজ(বৃহস্পতিবার) র‌্যাবের মহাপরিচালক এসেছিলেন৷” র‌্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুনের বাড়ি এই শাল্লা উপজেলায়৷ তার ভাই উপজেলা চেয়ারম্যান৷

হামলার শিকার যারা হয়েছেন তাদের জন্য জেলা প্রশাসন সাত মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে৷ আর কিছু পরিবারকে ক্ষতিপুরণ দেয়া হবে বলে তিনি জানান৷

এদিকে হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মুখপাত্র মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী হামলার দায় অস্বীকার করে বলেন, ‘‘স্থানীয় লোকজন যারা হামলা করেছে তাদের সাথে হেফাজতের কী সম্পর্ক? তাদের গায়ে কি হেফাজত লেখা আছে৷ এটা হেফাজতকে হেয় করার একটা ষড়যন্ত্র৷”

তিনি বলেন, ‘‘এই ধরনের হামলাকে হেফাজতে ইসলাম সমর্থন করে না৷ পুলিশের কাজ হাল যারা হামলা করেছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের হাতে সোপর্দ করা৷” নোয়াগাঁও গ্রামটিতে প্রায় দেড় হাজার লোকের বসবাস৷ তারা প্রায় চারশ’ পরিবার৷ পুরো গ্রামটিই হিন্দু অধ্যুষিত৷

এখন অনেকেই গ্রামে ফিরে আসলেও তাদের সব কিছু শেষ হয়ে গেছে৷ হাওড় এলাকার এই গ্রামের মানুষ মূলত মৎসজীবী৷ আর এক ফসলি জমির ওপর নির্ভর করে তাদের জীবন চলে৷

About Muktopata

Check Also

নড়াচড়া দেখে খুলল বস্তা, মিলল হাত-পা বাঁধা-মুখে টেপ মারা যুবক

বগুড়ার আদমদীঘিতে রেললাইনের পাশ থেকে এক যুবককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বস্তাটি নড়াচড়া করতে দেখে পুলিশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.